الصلوۃ والسلام علیک یا رسول اللہ (صلی اللہ علیہ وسلما) اللہ رب محمد صلی علیہ وسلما و علی زویہ والہ ابدالدھور وکرما আসসলাতু ওয়াসসলামু আলাইকা ইয়া রাসুলাল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম).
Gulam-E-Mustafa Hoon Din Ka Paigam Laya Hoon, Pilaan-E-Ke Liye Ahmad Raza Ka Jaam Laya Hoon.

রমাযানের_সিয়াম_ফরজ_হওয়ার_বর্ণনা_সহীহ_হাদীস

লিঙ্কে কিল্কিকরে পড়ুন   

  আল্লাহ তা‘আলা বললেন   ।।
وَقَوْلِ اللهِ تَعَالَى {يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا كُتِبَ عَلَيْكُمْ الصِّيَامُ كَمَا كُتِبَ عَلَى الَّذِينَ مِنْ قَبْلِكُمْ لَعَلَّكُمْ تَتَّقُونَ}
মহান আল্লাহর বাণী - হে মু’মিনগণ ! তোমাদের জন্য সিয়াম ফরজ করা হল, যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর, যেন তোমরা মুত্তাকী হতে পার  || 
[[ আল-বাকারাহ ১৮৩ ]]

 তালহা ইবনু ‘উবায়দুল্লাহ ( রা ) হতে বর্ণিত যে , এলোমেলো চুলসহ একজন গ্রাম্য আরব আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর নিকট এলেন । 
অতঃপর বললেন , হে আল্লাহর রাসূল ! আমাকে বলুন , আল্লাহ তা‘আলা আমার উপর কত সালাত ফরজ করেছেন , তিনি বললেনঃ পাঁচ ( ওয়াক্ত ) সালাত; তবে তুমি যদি কিছু নফল আদায় কর তা স্বতন্ত্র কথা । 
এরপর তিনি বললেন , বলুন , আমার উপর কত সিয়াম আল্লাহ তা‘আলা ফরজ করেছেন । আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন , রমাযান মাসের সওম । 
তবে তুমি যদি কিছু নফল সিয়াম আদায় কর তা হল স্বতন্ত্র কথা । এরপর তিনি বললেন , বলুন , আল্লাহ আমার উপর কী পরিমাণ যাকাত ফরজ করেছেন , রাবী বলেন , আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁকে ইসলামের বিধান জানিয়ে দিলেন । 
এরপর তিনি বললেন , ঐ সত্তার কসম , যিনি আপনাকে সত্য দিয়ে সম্মানিত করেছেন , আল্লাহ আমার উপর যা ফরজ করেছেন , আমি এর মাঝে কিছু বাড়াব না এবং কমাবও না । 
আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন , সে সত্য বলে থাকলে সফলতা লাভ করল কিংবা বলেছেন , সে সত্য বলে থাকলে জান্নাত লাভ করল   || 

সহীহ বুখারী ( তাওহীদ )অধ্যায়  ৩০ / সাওম / রোযা , হাদিস নম্বর - ১৮৯১ /১৮৯২ / ১৮৯৩।

Comments

Sign In or Register to comment.